1. admin@banglardorpon.com.bd : admin :
  2. lima@banglardorpon.com.bd : Khadizatul Kobra Lima : Khadizatul Kobra Lima
  3. miraz@banglardorpon.com.bd : Miraz Uddin : Miraz Uddin
  4. ed@sbjs.org.bd : Touhidul Islam : Touhidul Islam
আপা ৫০ টাকায় পচা মাছগুলো নিয়ে যান : জয়াকে মাছ বিক্রেতা - Banglar Dorpon
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন

আপা ৫০ টাকায় পচা মাছগুলো নিয়ে যান : জয়াকে মাছ বিক্রেতা

স্টাফ রিপোর্টার
  • সংবাদের সময় : বুধবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ২৮ বার দেখা হয়েছে

অভিনের্তী জয়া আহসানকে রাজধানী কারওয়ানবাজারের এক মাছ বিক্রেতা ৫০ টাকায় পচা মাছ কেনার অফার করেছেন। ব্যাপারটি বিশ্বাস করতে আপনার কষ্ট হলেও, বাস্তবে এমন ঘটনাই ঘটেছে। সেটি ইরানি ‘ফেরেশতে’ সিনেমার শুটের সময়।”

এপ্রিলের প্রথম দিন থেকে ঢাকায় চলছে এ সিনেমার শুট। মাছের বাজারে শুট হয়েছে কয়েকদিন। সেখানে ঘটা মজার গল্প জয়া শেয়ার করেছেন, “কারওয়ানবাজারে শুটিং করছিলাম। আমার বেশভূষা দেখে কেউ টাটকা মাছও অফার করল না। একজন ডেকে বললেন, ‘আপা ৫০ টাকায় এ পচা মাছগুলো নিয়ে যান।’ কী একটা অবস্থা বলুন।”

সিনেমাটিতে চরিত্র প্রসঙ্গে জয়া ধারণা দিয়েছে এভাবে, ‘আমি শুটিংয়ের পুরো সময় মেকআপ নিয়ে থাকতাম। আমার চরিত্রটি একেবারে সাদামাটা। বস্তির সাধারণ মানুষের মতো। এতে করে একটা সুবিধা হতো, রাস্তায় অন্যদের সামনে ঘুরে বেড়ালেও কেউ আমাকে চিনতে পারত না।”

জয়ার এ বেশভূষা নিয়ে আরও গল্প আছে। শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা সংলগ্ন একটি রেস্তোরাঁয় সিনেমাটি নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে জয়া আরও শুনিয়েছেন, ‘পল্টনের স্কুলে শুটিং করছিলাম। সেখানে ইফতারের পর জাকাতের কাপড় ও টাকা দেওয়া হবে। বয়স্ক এক ভদ্রমহিলা কাপড় নিতে এসেছেন। তিনি বারবার কাপড় চাইছিলেন। আমি তাঁকে বললাম, খালা আপনি থামেন, আপনাকে কাপড় দেব। তিনি আমার দিকে আশ্চর্য দৃষ্টিতে তাকিয়ে আবার পাশের জনের কাছে চাইতে লাগলেন! আমাকে দেখে আমার কথা তাঁর বিশ্বাসই হয়নি।”

‘ফেরেশতে’ সিনেমা পরিচালনা করেছেন মুর্তজা অতাশ জমজম। তাঁর গল্পে সিনেমার বেশ কিছু শুটিং হয়েছে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, কারওয়ানবাজার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রেলস্টেশন এলাকাসহ আরও কিছু জায়গায়।”

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে, ‘ফেরেশতে’ একটি ইরানি সিনেমা, যার গল্প বাংলাদেশি, কিন্তু নির্মাণ হবে ইরানি ঢঙে।” দৃশ্যায়িত হচ্ছে বাংলা ভাষায়।” পরে ডাবিং করে ইরানে এটি দেখানো হবে।” বেশ কিছু আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে এটি পাঠানোর পরিকল্পনা আছে।”

সিনেমাটি প্রসঙ্গে জয়ার ভাষ্য, ‘ইরানি সিনেমার কদর বিশ্ব দরবারে কেমন, সেটা আপনার সবাই জানেন। আশা করছি এ সিনেমাটি আমার জীবনে শিল্পের জন্য শিল্পের একটি কাজ হয়ে থাকবে। এটি আমার প্রোফাইলে কিছু অ্যাড করার মতো কাজ হবে।” বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ প্রযোজনার সিনেমাটিতে আরও অভিনয় করছেন রিকিতা নন্দিনী শিমু, সুমন ফারুকসহ অনেকে।”

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ধরনের আরও সংবাদ