1. admin@banglardorpon.com.bd : belal :
  2. firoz@banglarsangbad.com.bd : Firoz Kobir : Firoz Kobir
  3. rubin@wfh.thewolf.club : lavonneportillo :
  4. lima@banglardorpon.com.bd : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  5. mijuahmed2016@gmail.com : Miju Ahmed : Miju Ahmed
  6. lon@wfh.thewolf.club : roboshaughnessy :
  7. test23519785@wintds.org : test23519785 :
  8. test36806100@wintds.org : test36806100 :
  9. test37402178@wintds.org : test37402178 :
  10. test38214340@wintds.org : test38214340 :
  11. test40493353@wintds.org : test40493353 :
  12. test9417170@wintds.org : test9417170 :
  13. rona@wfh.thewolf.club : waldo43b400667 :
যেভাবে অন্তর পরিশুদ্ধ হয়
বাংলার দর্পন পরিবারে আপনাকে স্বাগতম...!!!

এখন সময় দুপুর ১২:৩১ আজ রবিবার, ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি




যেভাবে অন্তর পরিশুদ্ধ হয়

রিপোর্টার
  • সংবাদ সময় : শনিবার, ২ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৭ বার দেখা হয়েছে
যেভাবে অন্তর পরিশুদ্ধ হয়

দুনিয়া ও আখিরাতের সফলতার জন্য আত্মার পবিত্রতা অর্জনের বিকল্প নেই। মানুষের আত্মা যখন পৃথিবী ছেড়ে পরকালে যাত্রা করে, তা পবিত্র হলে মহান আল্লাহ ফিরিশতাদের মাধ্যমে তাকে বিশেষ সংবর্ধনা দেন। জান্নাতে অপবিত্র জিনিসের জায়গা নয়, তাই জান্নাতে প্রবেশ করতে হলেও আত্মাকে পবিত্র করতে হবে। গুনাহমুক্ত জীবন গড়তে হবে। কারণ গুনাহের কারণে আত্মা অপবিত্র হয়ে যায়।

আত্মার পবিত্রতা অর্জন করতে হলে সর্বদা আত্মাকে পরিশুদ্ধ রাখার চেষ্টা করতে হবে। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘সফল ওই ব্যক্তি, যে তার আত্মাকে পরিশুদ্ধ করে। এবং ব্যর্থ ওই ব্যক্তি, যে তার আত্মাকে কলুষিত করে।’ (সুরা : শামস, আয়াত : ৯-১০)

নিম্নে আত্মা পরিশুদ্ধ রাখার কিছু উপায় তুলে ধরা হলো, সর্বাবস্থায় আল্লাহকে ভয় করা : পরিশুদ্ধ আত্মা অর্জনে আল্লাহভীতির কোনো বিকল্প নেই। কারণ মানুষ আল্লাহভোলা হয়ে গেলেই অপরাধে লিপ্ত হয়ে তার আত্মার পবিত্রতা হারিয়ে ফেলে। এর বিপরীতে যারা আল্লাহকে ভয় করে, আল্লাহর আদেশ-নিষেধ মেনে চলে, তারা যা ইচ্ছা তাই করে নিজের আত্মাকে অপবিত্র করতে পারে না। যার পুরস্কারস্বরূপ তারা মহান আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করতে পারে। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘যে ব্যক্তি আল্লাহর সম্মুখে দাঁড়ানোকে ভয় করে, তার জন্য রয়েছে দুটি জান্নাত। (সুরা আর-রহমান, আয়াত : ৪৬)

অর্থাৎ যে ব্যক্তি আল্লাহকে ভয় করে পৃথিবীতে জীবন যাপন করেছে, সব সময় যার মধ্যে এ উপলব্ধি কাজ করেছে যে আমাকে একদিন আমার রবের সামনে দাঁড়াতে হবে এবং নিজের সব কাজ-কর্মের হিসাব দিতে হবে। তার জন্য আছে (বিশেষ) দুটি জান্নাত। (ইবনে কাসির)

অন্য আয়াতে ইরশাদ হয়েছে, আল্লাহ তাদের সঙ্গে থাকেন, যারা তাকওয়া অবলম্বন করে ও সৎকর্মশীল। (সুরা নাহল, আয়াত : ১২৮)

আল্লাহর স্মরণ অন্তর নরম করে : আল্লাহর জিকিরে মানব হৃদয় প্রশান্ত ও নরম হয়। এতে আত্মার পরিশুদ্ধি লাভ হয়। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘জেনে রেখো! আল্লাহর জিকিরেই অন্তর প্রশান্ত হয়।’ (সুরা রাআদ, আয়াত : ২৮)

নবীজি (সা.)-এর সুন্নত আঁকড়ে ধরা : পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ বলেন, ‘রাসুল তোমাদের যা দেন, তা গ্রহণ করো এবং যা নিষেধ করেন, তা থেকে বিরত থাকো। (সুরা হাশর, আয়াত : ৭)

গুনাহ ত্যাগ করা : মহান আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা যদি সেসব কবিরা গুনাহ পরিহার কর, যা থেকে তোমাদের বারণ করা হয়েছে, তাহলে আমি তোমাদের গুনাহসমূহ ক্ষমা করে দেব এবং তোমাদের প্রবেশ করাব সম্মানজনক প্রবেশস্থলে।’ (সুরা : নিসা, আয়াত : ৩১)

সর্বদা আখিরাতের স্মরণ করা : সর্বদা আখিরাতের কথা স্মরণ করলে অন্তরে পাপের প্রবণতা কমে আসে, যা মানুষের আত্মাকে পরিশুদ্ধ রাখতে সাহায্য করে। মহান আল্লাহ বলেন, ‘তারা কি চিন্তা করে না যে তারা অবশ্যই পুনরুত্থিত হবে সেই মহাদিবসে? যেদিন সমস্ত মানুষ জগৎসমূহের প্রতিপালকের সামনে দাঁড়াবে?’ (সুরা মুতাফফিফিন, আয়াত : ৪-৬)

মহান আল্লাহ সবাইকে আত্মার পবিত্রতা অর্জনের তাওফিক দান করুন। আমিন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো খবর



প্রকৌশল সহযোগিতায়: মোঃ বেলাল হোসেন