1. ashik@banglardorpon.com.bd : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  2. admin@banglardorpon.com.bd : belal :
  3. firoz@banglarsangbad.com.bd : Firoz Kobir : Firoz Kobir
  4. rubin@wfh.thewolf.club : lavonneportillo :
  5. lima@banglardorpon.com.bd : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  6. mijan@banglardorpon.com.bd : Mijanur Rahman : Mijanur Rahman
  7. lon@wfh.thewolf.club : roboshaughnessy :
  8. rona@wfh.thewolf.club : waldo43b400667 :
জিরার যত উপকারিতা
বাংলার দর্পন পরিবারে আপনাকে স্বাগতম...!!!

এখন সময় রাত ৪:৫১ আজ মঙ্গলবার, ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই রমজান, ১৪৪২ হিজরি




জিরার যত উপকারিতা

রিপোর্টার
  • সংবাদ সময় : মঙ্গলবার, ৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৪ বার দেখা হয়েছে
জিরার যত উপকারিতা

বহুল ব্যবহৃত মসলার একটি হলো জিরা। এটি কমবেশি প্রতিটি পদ রান্নায় দিয়ে থাকেন রাঁধুনীরা। এই মসলা যে শুধু তরকারির স্বাদ বৃদ্ধি করে তাই না, এর অনেক ঔষধি গুণও রয়েছে। তাই প্রতিদিন নিয়ম করে জিরা খেলে বদহজম থেকে শুরু করে নানা সমস্যার সমাধান করে থাকে।

জিরা নিয়ে করা বেশ কিছু গবেষণায় এই তথ্য উঠে আসে। এমন খবর প্রকাশ করেছে নিউজ এইট্টিন।

গবেষণার তথ্য মতে, নিয়মিত জিরার পানি পান করলে শরীরের ডায়াজেস্টিভ এনাজাইমের উৎপাদন বেড়ে যায়। এছাড়াও লিভারে উপস্থিত ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানেরাও শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। এতে করে লিভারের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

জিরাতে থাকা উপকারি উপাদান শরীরে প্রবেশ করার পর বুকে মিউকাসের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা কমায়। একই সঙ্গে ফুসফুসের কর্মক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়। ফলে নানাবিধ রেসপিরেটরি ডিজিজে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও হ্রাস পায়।

এক গ্লাস পানিতে পরিমাণ মতো জিরা ভিজিয়ে সেই পানি পান করতে হবে। এভাবে নিয়মিত জিরার পানি খেলে বদহজম দূর হয়ে যাবে।

এছাড়াও জিরাতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে। এটি শরীরে প্রবেশ করার পর মেটাবলিজমের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। ফাইবার ওজন কমাতে সাহায্য করে। ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খেলে অনেকক্ষণ পর্যন্ত পেট ভরা থাকে। ফলে বার বার খাবার খাওয়ার ইচ্ছা চলে যায়।

নিয়মিত জিরার দেওয়া জুস খেলে শরীরে পানির ঘাটতি দূর হয়। একই সঙ্গে শরীরের তাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। ফলে শরীর ডিহাইড্রেশনের কোনো সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো খবর



প্রকৌশল সহযোগিতায়: মোঃ বেলাল হোসেন