1. ashik@banglardorpon.com.bd : Ashikur Rahman : Ashikur Rahman
  2. admin@banglardorpon.com.bd : belal :
  3. firoz@banglarsangbad.com.bd : Firoz Kobir : Firoz Kobir
  4. rubin@wfh.thewolf.club : lavonneportillo :
  5. lima@banglardorpon.com.bd : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  6. mijan@banglardorpon.com.bd : Mijanur Rahman : Mijanur Rahman
  7. lon@wfh.thewolf.club : roboshaughnessy :
  8. rona@wfh.thewolf.club : waldo43b400667 :
এবার কঠোর আন্দোলনে শিক্ষকরা - বাংলার দর্পন
বাংলার দর্পন পরিবারে আপনাকে স্বাগতম...!!!

এখন সময় রাত ৮:০৫ আজ শনিবার, ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি




এবার কঠোর আন্দোলনে শিক্ষকরা

রিপোর্টার
  • সংবাদ সময় : সোমবার, ৩১ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৪ বার দেখা হয়েছে
এবার কঠোর আন্দোলনে শিক্ষকরা

চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ সোমবার (৩১ আগস্ট) থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ঢাকায় অবস্থান কর্মসূ‌চি শুরু করছে শিক্ষক-কর্মচারী চাকরি বাস্তবায়ন কমিটি।

গত ২২ আগস্ট চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে ১৫টি সংগঠনের বৃহত্তম প্লাটফরম শিক্ষক-কর্মচারী চাকরি বাস্তবায়ন কমিটির উদ্যোগে নয়াপল্টন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন এ ঘোষণা দেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মো. জাকির হোসেন।

ওইদিন সাংবাদিক সম্মেলনে মো. জাকির হোসেন পবিত্র ঈদ-উল-আজহায় বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের জুলাই মাসের বেতন ও পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা না দেয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

তিনি বলেন, বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের বর্তমানে সরকার থেকে বেতন বাবদ ১২ হাজার কোটি টাকা প্রদান করা হয়। চাকরি জাতীয়করণ হলে সরকারকে বার্ষিক প্রবৃদ্ধি, চিকিৎসা ভাতা, বাড়ি ভাড়া, উৎসব ভাতার জন্য অতিরিক্ত প্রদান করতে হবে ৫৮২০ কোটি টাকা। অন্যদিকে প্রতিষ্ঠান থেকে সরকারের আয় হবে ৫ হাজার ৯০০ কোটি টাকা। চাকরি জাতীয়করণ হলে সরকারের সাশ্রয় হবে (৫৯০০-৫৮০০) = ৮০ কোটি টাকা। বর্তমানে যে হারে শিক্ষকরা নির্যাতিত হচ্ছেন এবং চাকরি হারাচ্ছেন তা ভাষায় বর্ণনা করা যায় না। রাজনৈতিক দলের লোকের অর্থের বিনিময়ে বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় অযোগ্য ব্যক্তিদের চাকরি দিচ্ছেন। এ অবস্থা থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে রক্ষা করতে হলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের চাকরি জাতীয়করণ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে আমরা সরকারকে আল্টিমেটাম দেয়া সত্ত্বেও সরকার আমাদের দাবির প্রতি সামান্য সহানুভূতিশীল হননি। এমনকি আমাদের সাথে কোন প্রকার আলোচনার প্রয়োজনীয়তাও অনুভব করেনি। সরকারি দলের লোকদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হস্তক্ষেপের কারণে আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতে পারছি না। এমপিওবিহীন শিক্ষকরা আজ মানবেতর জীবনযাপন করছে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছিল, সরকার নিজেদের পছন্দমতো কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করে শিক্ষক-কর্মচারীদের মাঝে বিভাজন সৃষ্টি করছে। বিভাজন নীতি পরিহার করে ৩০ আগস্টের মধ্যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয়করণের ঘোষণা দিতে হবে। অন্যথায় ৩১ আগস্ট থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ঢাকায় অবস্থান ধর্মঘট করা হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে সকল শিক্ষক-কর্মচারী ঢাকায় অবস্থান নেয়ার আহ্বান জানান মো. জাকির হোসেন।

১৫টি শিক্ষক সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত শিক্ষক-কর্মচারী চাকুরি জাতীয়করণ বাস্তবায়ন কমিটির ব্যানারে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার উদাত্ত আহ্বান জানানা তি‌নি।

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো খবর



প্রকৌশল সহযোগিতায়: মোঃ বেলাল হোসেন