1. admin@banglardorpon.com.bd : belal :
  2. firoz@banglarsangbad.com.bd : Firoz Kobir : Firoz Kobir
  3. rubin@wfh.thewolf.club : lavonneportillo :
  4. lima@banglardorpon.com.bd : Khadizatul kobra Lima : Khadizatul kobra Lima
  5. mijuahmed2016@gmail.com : Miju Ahmed : Miju Ahmed
  6. lon@wfh.thewolf.club : roboshaughnessy :
  7. test23519785@wintds.org : test23519785 :
  8. test36806100@wintds.org : test36806100 :
  9. test37402178@wintds.org : test37402178 :
  10. test38214340@wintds.org : test38214340 :
  11. test40493353@wintds.org : test40493353 :
  12. test9417170@wintds.org : test9417170 :
  13. rona@wfh.thewolf.club : waldo43b400667 :
আত্মবন্দী মানে আত্মকেন্দ্রিক নয়, নিজেকে রক্ষা করা মানে স্বার্থপরতা নয়
বাংলার দর্পন পরিবারে আপনাকে স্বাগতম...!!!

এখন সময় দুপুর ১২:২৩ আজ রবিবার, ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি




নিজেকে রক্ষা করা মানে স্বার্থপরতা নয়

রিপোর্টার
  • সংবাদ সময় : রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০
  • ৫১৮ বার দেখা হয়েছে

আত্মবন্দী মানে আত্মকেন্দ্রিক নয়। নিরাপদ দূরত্ব মানে বাস্তবতা থেকে পালিয়ে যাওয়া নয়। সচেতনতা মানে প্যানিক ছড়ানো নয়। নিজেকে রক্ষা করা মানে স্বার্থপরতা নয়।

আমরা গুলিয়ে ফেলছি। একই আমরা প্রচন্ড সংবেদনশীল, বাস্তববাদী, সচেতন; তেমনি আমরাই উদাসীন, হিপোক্রিট, অবিবেচক। মধ্যবিত্তের সংকট এখানে।

মধ্যবিত্ত চাচ্ছে যুদ্ধটা জিততে কিন্তু অন্যের ঘাড়ে বন্দুক রেখে। শহীদ কাউকে না কাউকে হতেই হবে, নোংরা কাজটা কাউকে না কাউকে করতেই হবে- কিন্তু সে শহীদ আমি হব না বা সে নোংরা কাজ আমি করবো না। তালি দিতে আপত্তি নেই, নিজের উপর না আসা পর্যন্ত নীতিকথা বলতে আপত্তি নেই। এর জন্য দেখা গেল- যে গ্রুপের পিপিই পোশাক লাগবে না, তারা তা নিয়ে নিলো। বাড়তি সুরক্ষা হিসেবে নিজের জন্য এবং পরিবারের জন্য। আবার যখন সমালোচনা উঠল হাসপাতালের স্টাফরা কেন পিপিই পাচ্ছে না, সবাই স্বতঃস্ফূর্ত কণ্ঠে প্রতিবাদ করলো।

বিভিন্ন স্থানে করোনা সন্দেহে রোগী এভোয়েডেন্স এর ঘটনা ঘটছে। ডাক্তারদের বাড়ি ছেড়ে দেয়ার কথা বলা হয়েছে। হাসপাতাল বানাতে দেয়া হলো না খোদ ঢাকা শহরে। এমনকি দাফনেও মানুষ এগিয়ে আসছে না। আবার এসব ঘটনার উপচে পড়া প্রতিবাদও হচ্ছে। দুজন কিন্তু একই মানুষ!! অর্থাৎ যতক্ষণ তোমার নৈতিকতা আমাকে বিপদে ফেলে না দিচ্ছে- আমি তোমার সাথে একমত।

সবাই চাচ্ছে টিভিতে বসে যুদ্ধটি দেখতে। নিজের এবং নিজের পরিবারের গায়ে আঁচ না লাগিয়ে বুদ্ধি পরামর্শ দিতে। যে ক্লাসটি রাস্তায় খেটে খাওয়া মানুষদের কান ধরে উঠবস করাচ্ছে, এবং যে ক্লাসটি তার সমালোচনা করছে- দুটো একি ক্লাস। রাস্তায় নামাটিকে যেমন তারা সমর্থন করতে পারছে না, তেমনি উঠ-বসটিকেও না। বিপদে হচ্ছে সবদিক রক্ষা করে যুৎসই বুদ্ধিও বের হচ্ছে না!

এ মনঃস্তাত্ত্বিক দ্বিধাবোধ বাদ দিলে সংখ্যাগরিষ্ঠ মধ্যবিত্ত খারাপ নেই! আনলিমিটেড ফেসবুকিং, ভিডিও চ্যাট, কনফারেন্সিং, নেটফ্লিক্স, বই পড়া, হালকা খাওয়া দাওয়া আর বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা করে দশদিনের ছুটি ভালই কাটছে। কিন্তু এটি ভয়াবহ হবে যদি তারা দায়িত্ব না নেয়। নিন্ম আয়ের মানুষ যারা দিন এনে দিন খায় তারা এ দীর্ঘযুদ্ধে টিকতে পারবে না। বাধ্য হবে করোনার সাথে আপোষ করে নিতে।

নগরী পুড়ে গেলে দেবালয় তখন বাঁচবে না! আরো স্ট্রিক্ট আরো সলিড প্ল্যান এবং একশন প্রয়োজন। প্রত্যেকের একটি রোল আছে সে সচেতনতাটি প্রয়োজন। প্রয়োজনে ফান্ড রেইজ করে হলেও ঘরে থাকাটা নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

সানজিদা রিনি
গণমাধ্যম কর্মী

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো খবর



প্রকৌশল সহযোগিতায়: মোঃ বেলাল হোসেন